মঙ্গলবার, ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ রাত ১২:১৫
Home / কওমি অঙ্গন / তবলিগ জামাতের আমিরের তরফ থেকে দারুল উলুম দেওবন্দে পাঠানো চিঠি

তবলিগ জামাতের আমিরের তরফ থেকে দারুল উলুম দেওবন্দে পাঠানো চিঠি

অনুবাদ: মোহাম্মদ ইকরাম হোসেন :

ড. আজমত উল্লাহ খান কৃত সিয়াসি তাকদির নামে ভারত থেকে প্রকাশিত পত্রিকার রিপোর্ট।

কিরানার তবলীগ জামাতের সাথে সম্পর্ক যুক্ত জিম্মাদার সাথী হাফেজ মোহাম্মদ রেদোয়ান আনসারী সাহেব তবলিগ জামাতের আমির মাওলানা সা‘আদ সাহেব কান্ধলভির তরফ থেকে দারুল উলুম দেওবন্দের মোহতামিম মুফতি আবুল কাশেম নোমানী সাহের কাছে পাঠানো ৪ দিন (২রা ফেব্রুয়ারি) আগের একটি চিঠি সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন।

চিঠিতে তিনি সুস্পষ্টভাবে বর্ণনা করেন যে, উনার তরফ থেকে সাইয়্যাদেনা মুসা আ.-এর বিষয়ে বয়ানকৃত যে সমস্ত বিষয়ে আপত্তি আছে তা থেকে উনি সম্পূর্ণ রুজু হচ্ছেন বা প্রত্যাবর্তন করছেন। ভবিষ্যতে ইনশাআল্লাহ এর উপর আমল করবেন।

এখানে উল্লেখ্য যে, মাওলানা সা‘আদ সাহেবসহ তবলিগের জিম্মাদার অনেকেই সামিলী জেলার কসবা কান্দালার অভিবাসী।

হাফেজ মোহাম্মদ রেদওয়ান আনসারী সাহেব সংবাদ মাধ্যমে চিঠির ফটোকপি দিয়ে একথাও বলেন যে, দারুল উলুম দেওবন্দ এবং তবলিগি মার্কাজ উভয়ই আমাদের সম্মানিত দ্বীনি প্রতিষ্ঠান। উভয়ের মধ্যে কোনো একটির ক্ষুদ্র ক্ষতিও পুরো উম্মতের জন্য অনেক বড় ধ্বংসের কারণ।

উনি আরো বলেন, যারা ছোট ছোট কথাকে নিয়ে হাঙ্গামা করেন এবং মুসলমানদের মধ্যে এন্তেসার বা অস্থিতরা তৈরি করেন তারা ফেতনাবাজ। আমাদেরকে এদের সম্পর্কে হুসিয়ার থাকতে হবে।

আবুল কাশেম নোমানী সাহেব বলেন, উম্মতের দায়িত্ববানদের কাছে গুজারিশ বা অনুরোধ যে, দুই বড় দ্বীনি প্রতিষ্ঠানের মাসাআলার মাঝে উভয় প্রতিষ্ঠানেরই সম্মান বজায় রাখেন। এমন কোনো কাজ না করা যাতে বিরোধীরা শক্তিশালী হয়ে যায়।

বর্তমানে চার দিক থেকে ইসলাম ও মুসলমানদের উপর হামলা হচ্ছে। শয়তানী কর্মকান্ডের ঢোল পিটানো হচ্ছে। যদি আমাদের কোনো মাসআলা থাকে তবে তা পারস্পরিক সমঝোতার মাধ্যমে ঠিক করে নেয়া দরকার। এই বিষয়ে প্রোপ্রাগান্ডা করা সমূহ অনুচিত।

মাওলানা সা‘আদ সাহেবের চিঠির অনুবাদ

আস্সালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহ।

হযরত মাওলানা আবুল কাসেম নোমানী সাহেব দা.বা.

আশা করি ভালো আছেন। হযরতের চিঠি পেয়েছি। যেখানে বান্দাকে (আমাকে) এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যে, কোনো প্রকার ব্যাখ্যা বা যুক্তি ছাড়াই মূসা আ.-এর বিষয়ে  বয়ানসমূহ থেকে রুজু/প্রত্যাবর্তন করতে হবে।

দারুল উলুম দেওবন্দের উলামায়েকেরাম হযরতদের উপর আমার পরিপূর্ণ আস্থা আছে। সাইয়্যাদেনা হযরত মূসা আ. সম্পর্কিত আমার সমস্ত প্রশ্নবিদ্ধ বয়ানসমূহ থেকে কোনো রকম ব্যাখ্যা ও যুক্তি ছাড়াই আমি প্রত্যাবর্তন করছি। ভবিষ্যতে এই বিষয়ে বয়ান করার সময় সম্পূর্ণ সতর্কতা অবলম্বন করার চেষ্টা করব ইনশাআল্লাহ। আল্লাহ তা‘আলা শান্তি ও রহমত বর্ষণ করেন।

ফাকাদওয়াস্সালাম

বান্দা মোহা. সা‘আদ কান্দলভি

বাংলাওয়ালী মসজিদ বস্তি হযরত নিজামুদ্দিন

৪ জমাদিউ আউয়াল

২ ফেব্রুয়ারি
মূল চিঠি সংযুক্ত করা হলো নিচে।

About Abul Kalam Azad

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমীর নিউ ভার্সন এবং রাষ্ট্র থেকে স্বেচ্ছা নির্বাসন!

সৈয়দ শামছুল হুদা: বাংলাদেশের একটি আলোচিত অন্যতম রাজনৈতিক দলের নাম ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। সরকারে থাকা ...