শুক্রবার, ২১শে জুন, ২০২৪ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ রাত ১:৫৮
Home / কওমি অঙ্গন / বেফাকের বেফানা দৌড়াদৌড়ি : ১৭ তারিখের ওলামা সম্মেলন বাতিল

বেফাকের বেফানা দৌড়াদৌড়ি : ১৭ তারিখের ওলামা সম্মেলন বাতিল

বেফাক নিয়ে আল্লামা শফী দামাত বারাকাতুহুম ও হজরত আব্দুল জব্বার জাহানাবাদীর মাঝে মতপার্থক্য প্রকট

wakkasকমাশিসা ঢাকা নিউজ: আম্বরশাহ মসজিদে সরকার গঠিত কওমী সনদ স্বীকৃতিবিষয়ক কমিটির ১ম বৈঠক ছিলো। কমিটি বিকেল ৪টায় বৈঠক শেষ করার পরই সন্ধ্যার পর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত এবং বুধবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ভাঙ্গাপ্রেসের কার্যালয়ে লাগাতার বৈঠক করে বেফাক। বেফাকের ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, মহাসচিব মাওলানা আবদুল জব্বার জাহানাবাদী, মাওলানা নূর হোসাইন কাসেমী, মুফতি নূরুল আমিন, মাওলানা মাহফুজুল হক, মুফতি রেজাউল করিম ও মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দি প্রমুখ।

একটি সূত্র কমাশিসাকে  জানায়, বৈঠকে স্বীকৃতি বিষয়ে এই নাজুক পরিস্থিতি থেকে বেফাকের উত্তরণের বিভিন্ন কৌশল ও পথ নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়। বৈঠকে আগামী ১৭ অক্টোবর আরজাবাদে ওলামা সম্মেলন বাতিল করা হয়েছে। আল্লামা আহমদ শফীর সঙ্গে পরামর্শ করে পরবর্তীতে তারিখ নির্ধারণ করা হবে।

সম্প্রতি আল্লামা শফী সকল বোর্ডকে ঐক্যের আহ্বান জানিয়েছেন। ওই আলোকে বুধবারের বৈঠকে বেফাক ছাড়া নতুন কোনো নামে সকল বোর্ডকে এক করার প্রস্তাব করা হয় বলেও সূত্রটি জানায়।

এ প্রসঙ্গে মুফতি ওয়াক্কাস বৈঠকে বলেন, দারুল উলুম দেওবন্দ যেমন সে দেশের সকল বোর্ডকে ভিন্ন এক নামে ঐক্যবদ্ধ করেছে; আমরা বাংলাদেশে এই প্রক্রিয়ায় ঐক্যবদ্ধ করতে পারি।

তিনি মনে করেন, বেফাকের নামে ঐক্যের ডাকে কেউ আসবে না। কারণ, সবারই নিজস্ব ও স্বতন্ত্র অবস্থান রয়েছে। তাই বেফাক যেমন তার অবস্থান ছাড়তে পারছে না, তেমনি অন্য বোর্ডসমূহও তাদের অবস্থান ছাড়তে পারবে না। তাই নতুন নামে এই প্রক্রিয়া অগ্রসর হলে সফলতা আসবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

About Islam Tajul

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমি মাদরাসা কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ

খতিব তাজুল ইসলাম ট্রাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ কওমি অংগন একটি স্বীকৃত ও তৃণমূল প্লাটফর্ম। দেশ ও জাতির ...