বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ বিকাল ৪:০৩
Home / অনুসন্ধান / একটি অরণ্যে রোদন

একটি অরণ্যে রোদন

13453784_1113219245402650_187282086_n (1)রশীদ জামীল::

আওয়ামীলীগ এবং জাসদের খুনসুটিতে আরাম পাওয়ার কিছু নেই। এগুলো কিছুই না। স্রেফ ঘরকা মামলা। এ কারণে পারষ্পরিক সম্পর্কে কোনো প্রভাব পড়ছে বলেও মনে করার কোনো কারণ নাই। শেখ হাসিনা কি জানতেন না তাঁর বাবাকে হত্যা করার পর হাসানুল হক ইনুরা ট্যাংকের উপর উঠে উল্লাশ করেছিল? যদি ভাবা হয় তাঁর স্মৃতিশক্তি দুর্বল বলে তিনি সেটা ভুলে গিয়ে ইনুকে মন্ত্রী করেছিলেন, তাহলে আমরা বোকার স্বর্গেই আছি।

বাংলাদেশি গণতন্ত্রের নিজস্ব একটা মন্ত্র ছিল। সেটা ছিল ফিফটি ফিফটি ফর্মুলা। গণতন্ত্র মানে ছিল GO NO তন্ত্র। বিরোধীদল বলবে GO, সরকার বলবে NO, চলবে কামড়াকামড়ি। নাম হবে গণতন্ত্র। এখন GO বলারও কেউ নেই, সরকারো NO বলার চান্স পাচ্ছে না। তাহলে কী করতে হবে?
হালুয়া বানাও। দোস্ত-দুশমন মিলিয়ে ঘুটা লাগাও। বাঙালি বড় ভুলোমনা জাতি। যা খাওয়ানো যাই, সবর করে তাই খেয়ে ফেলে।

গণতন্ত্রের হালুয়া মার্কেটিং করতে হলে বিরোধীদল থাকতে হয়। একদা বিএনপি নামক একটি দল ছিল। কোমরে বিরোধিতা করার নিজস্ব জোর না থাকলেও কাগজে-কলমে হলেও ছিল। তারা ‘নাই’ হয়ে যাবার পর জোর করে ধরে জাতীয় পার্টিকে বিরোধিতা করার দায়িত্ব দেয়া হল। কিন্তু ছাগল দিয়ে তো আর হালচাষ হয় না। দেখা গেল এরা সকালে বিরোধিতার স্লোগান দিলে বিকেলে ভালোবাসার গান শোনায়। এদের দিয়ে কেমনে চলে?

গণ ধড়-পাকড় চলছে দেশে। সরকার দেশবাসীকে রমযানের উপহার দিচ্ছে। সাপ হয়ে দংশন করছে। ওঝা হয়ে ঝাড়ছে। এই অবস্থায় একটা বিরোধীদল থাকা দরকার, মানুষ এবং দর্শকের দৃষ্টি যাতে এককেন্দ্রিক হয়ে না যায়, সে জন্যে তারা কোনো না কোনো ইস্যু নিয়ে সরকারের সাথে একটু খুনসুটি করবে।। জাসদ তাদের উপর অর্পিত সে দায়িত্ব পালন করার চেষ্টা করছে মাত্র। এখানে ভিন্ন অর্থ খোঁজার কী আছে!

প্রধানমন্ত্রী!
একবার মাটির দিকে তাকান। টুঙ্গিপাড়ায় যান একবার। বাবার কবরে মাথা ঠেকিয়ে কান রাখুন মাটিতে। শুনুন কী আওয়াজ আসে। ভাবুন, আজ হোক, কাল হোক, আপনাকেও যেতে হবে ওখানে, মাটির নিচে। সবাইকেই যেতে হয়। যা করছেন, আপনি কি মনে করেন এগুলোর পক্ষে সাফাই নিয়ে আল্লাহর সামনে দাঁড়াতে পারবেন?

আপনাকে ঘিরে রাখা ডানে-বামে যারা, অথবা সীমানার ওপারে, খোদার কসম সেদিন কেউ আপনার পাঁশে দাঁড়াবে না। কিয়ামতের দিন আল্লাহ যখন আপনার ঘাড়ে ধরে বলবেন, লাশের হিসাবটা দে, তখন কাউকেই পাশে পাবেন না। না গাধাদের, না দাদাদের।

About Islam Tajul

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমি মাদরাসা কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ

খতিব তাজুল ইসলাম ট্রাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ কওমি অংগন একটি স্বীকৃত ও তৃণমূল প্লাটফর্ম। দেশ ও জাতির ...