সোমবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ রাত ১২:২১
Home / প্রতিদিন / হাতে হাত রেখে ঐক্য’র শপথ

হাতে হাত রেখে ঐক্য’র শপথ

13335620_1886859558207770_778468062609159310_nকমাশিসা ডেস্ক: বর্তমান শিক্ষানীতিকে প্রজন্ম ধ্বংসের শিক্ষা নীতি আখ্যায়িত করে সিলেটে অনুষ্ঠিত হয়েছে সর্বদলীয় ইসলামি ছাত্র ঐক্যের মহাসমাবেশ । সমাবেশে ছাত্রনেতারা দীর্ঘদিনের বিভেদ-বিরোধ ভুলে একযোগে শিক্ষানীতির বাতিলের আন্দোলনে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন।

সমাবেশে নিজেদের ঐক্য ও সংহতি প্রকাশের লক্ষ্যে ছাত্রনেতাদের হাতে হাত মেলাতে দেখে অনেকে আনন্দে অশ্রু ঝরিয়েছেন । অনেকেই আশা করেছেন, এভাবে যদি বড়রাও এক হতে পারে তবে ইসলাম এ অঞ্চলে একটি বিজিত শক্তি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে অচিরেই ।

এদিকে সর্বদলীয় ইসলামি ছাত্র ঐক্যর সমাবেশ দেখে বিস্মিত হয়েছেন ছাত্রদল ও ছাত্রশিবিরের নেতারা । তারা বলেন, কেবলমাত্র ইসলামভিত্তিক কয়েকটি দল মিলে কী করে সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্য গঠিত হতে পারে । এর আগে অবশ্য ছাত্র শিবিরের নেতারা ছাত্রদলের সঙ্গে একজোট হয়ে ১৯৯০-এর মতো একটি সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্য গঠনে বেশ তোড়জোড় দেখিয়েছেন বলে খবরে প্রকাশ ।

ইসলামী আদর্শবিরোধী প্রস্তাবিত শিক্ষা আইন ২০১৬ বাতিল এবং শিক্ষানীতি ২০১০ ও বিতর্কিত সিলেবাস সংশোধনের দাবীতে বৃহস্পতিবার সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসা মাঠে সর্বদলীয় ইসলামী ছাত্রঐক্য আয়োজিত বিভাগীয় ছাত্র গণ সমাবেশে বক্তারা বলেন, বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম এ দেশের মানুষ অত্যন্ত ধর্মপ্রাণ। সুতরাং এখানে ধর্মনিরপেক্ষতা ও অসাম্প্রদায়িকতার ধোঁয়া তুলে ধর্মীয় শিক্ষাকে পাশ কাটিয়ে পাঠ্যসূচি প্রণয়ন মূলত দেশের সংখ্যাগরিষ্ট মানুষের বিরুদ্ধে অবস্থানের নামান্তর। দু:খজনক হলেও সত্য, সরকার স্কুল-কলেজ-মাদরাসার সিলেবাস থেকে ইসলামী ভাবধারার বিষয় ও রচনাবলী বাদ দিয়ে এর স্থলে নাস্তিক্যবাদী ও হিন্দুত্ববাদী বিষয় ও রচনাবলী অন্তর্ভূক্ত করে শিক্ষার্থীদের মন-মানসে নাস্তিক্যবাদের বীজ বপন করছে। সরকার ইসলামবিরোধী কোনো কাজ করবে না বলে প্রতিশ্রæতি দিলেও তারা অত্যন্ত সুকৌশলে একটি ইসলামবিদ্বেষী নাস্তিক প্রজন্ম তৈরির ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। শিক্ষানীতি ২০১০, প্রস্তাবিত শিক্ষা আইন ২০১৬ ও নতুন সিলেবাস এরই প্রমাণ। বক্তারা হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, নাস্তিক্যবাদী সিলেবাস, শিক্ষানীতি এবং প্রস্তাবিত শিক্ষা আইন বাতিল না করলে সরকারকে চরম মূল্য দিতে হবে।

সর্বদলীয় ইসলামী ছাত্র ঐক্যের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়া-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ ফখরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে ও  ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশ-এর সহ-সভাপতি মোঃ সাইফুল ইসলাম এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তারা আরো বলেন, এদেশে ইসলাদেও উর্বরভূমি। আউলিয়ায়ে কেরাম এদেশে ইসলামকে সুপ্রতিষ্ঠিত করেছেন। এদেশের মাদরাসা শিক্ষা তাদেরই চিন্তা-চেতনা ও শ্রমের ফসল। আউলিয়ায়ে কিরামের প্রতিষ্ঠিত মাদরাসার শিক্ষার মূল আদর্শ ও স্বকীয়তাকে কোনো নাস্তিক্যবাদী চিন্তাধারার সিলেবাসের দ্বারা ধ্বংস করার ষঢ়যন্ত্র মেনে নেয়া হবে না। সংখ্যাগরিষ্ট মুসলমানের এ দেশে ইসলামী শিক্ষার স্বকীয়তা রক্ষার পাশাপাশি সর্বস্তরে ধর্মীয় শিক্ষা বাধ্যতামূলক করতে হবে। ইসলামের সাথে সাংঘর্ষিক সকল গল্প, প্রবন্ধ ও কবিতা বাদ দিয়ে সিলেবাস সংশোধন করতে হবে। মুসলিম ঐতিহ্য ও ভাবধারার কবি-সাহিত্যিকগণের গল্প, কবিতা ও প্রবন্ধ অন্তর্ভূক্ত করতে হবে। প্রয়োজনে এ ক্ষেত্রে দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেম-উলামা ও ইসলামী চিন্তাবিদদেও পরামর্শ ও সহযোগিতা নিতে হবে।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সর্বদলীয় ইসলামী ছাত্র ঐক্য-এর মুখপাত্র ও ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ নাছির উদ্দিন খান, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন এর সভাপতি নূরুল ইসলাম আল আমিন,  প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিস-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ হারুনুর রশীদ, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসমাজ-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মাসউদ খান, বাংলাদেশ জমিয়তে তালাবায়ে আরাবিয়া-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল কাদীর এবং বাংলাদেশ খেলাফত ছাত্র আন্দোলন-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি হাফেজ মুহাম্মদ আল-আমীন, ইসলামী ছাত্র খেলাফত বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত।

এতে আরো বক্তব্য রাখেন, সর্বদলীয় ইসলামী ছাত্র ঐক্য-এর সমন্বয়কারী  ও বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা হাসান চৌধুরী গিলমান, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিস-এর সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ আব্দুর রহীম সাঈদ, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসমাজ-এর মহাসচিব মুহাম্মদ নূরুজ্জামান, বাংলাদেশ জমিয়তে তালাবায়ে আরাবিয়া-এর প্রধান সম্পাদক মুহাম্মদ আব্দুর রহমান, ইসলামী ছাত্র খেলাফত বাংলাদেশ-এর সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ আবুল হাশিম, বাংলাদেশ খেলাফত ছাত্র আন্দোলন-এর সাধারণ সম্পাদক হাফেজ নেয়ামতুল্লাহ, ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশ এর জয়েন্ট সেক্রেটারি শাহাদাত হোসাইন, বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়া-এর সাংগঠনিক সম্পাদক মুহা. শরীফ উদ্দিন, অর্থ সম্পাদক রেদওয়ান আহমদ চৌধুরী, অফিস সম্পাদক আখতার হোসাইন জাহেদ ও ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক এস এম এমদাদুল্লাহ ফাহাদ, বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়া কেন্দ্রীয় সহ-অফিস সম্পাদক ও  সিলেট পূর্ব জেলা শাখার সভাপতি মুহাম্মাদ উসমান গণী, ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশের প্রাক্তন কেন্দ্রীয় সভাপতি নজরুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক তৈয়বুর রহমান, মতিউর রহমান, ছাত্রমসজিল সিলেট মহানগর সভাপতি সোহাইল আহমদ, সাধারণ সম্পাদক সাদিক সালিম, পশ্চিম জেলা সভাপতি সৈয়দ ফেদাউল হক, বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়া সিলেট পশ্চিম জেলা সভাপতি সুলতান আহমদ, মহানগর সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান ফরহাদ, ইসলাম শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন সিলেট মহানগর সভাপতি মুহাম্মদ মাহমুদুল হাসান, মৌলভীবাজার জেলা সভাপতি মুহাম্মদ ইউসুফ আহমদ, সুনামগঞ্জ জেলা পূর্ব সভাপতি মুহাম্মদ জহিরুল ইসলাম, ছাত্র খেলাফত বাংলাদেশ সিলেট জেলার আহবায়ক মুহি উদ্দিন কামিল, সদস্য সচিব আব্দুল হাই মাসুম, মহানগর আহবায়ক রফিকুল ইসলাম খান, সদস্য সচিব খলিলুর রহমান সহ বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সূত্র : সিলেট ভিউ২৪.কম

 

About Abul Kalam Azad

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমি মাদরাসা কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ

খতিব তাজুল ইসলাম ট্রাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ কওমি অংগন একটি স্বীকৃত ও তৃণমূল প্লাটফর্ম। দেশ ও জাতির ...