মঙ্গলবার, ২৮শে জুন, ২০২২ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ বিকাল ৩:২৮
Home / অর্থনীতি / আতিউরের পদত্যাগ, নতুন গভর্নর ফজলে কবির

আতিউরের পদত্যাগ, নতুন গভর্নর ফজলে কবির

imagesুঅনলাইন ডেস্ক :: বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনায় আজ মঙ্গলবার গভর্নরের পদ থেকে পদত্যাগ করলেন আতিউর রহমান। এ ব্যাপারে তিনি বিকেল তিনটায় তাঁর বাসায় সংবাদ সম্মেলন করবেন। আতিউর রহমান আজ বেলা সোয়া ১১টার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করার জন্য কাছে তাঁর কার্যালয়ে যান। তিনি তাঁর পদত্যাগপত্র প্রধানমন্ত্রীর কাছে জমা দেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বেলা সোয়া একটার দিকে আতিউর রহমান প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে চলে যান। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের কোনো প্রশ্নের জবাব দেননি। বলেন, বিকেল তিনটায় সংবাদ সম্মেলন করবেন। আর সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সাংবাদিকদের বলেন, সাবেক অর্থসচিব ফজলে কবিরকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। ফজলে কবির বর্তমানে সোনালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান।

সকালে নিজ বাসায় সাংবাদিকদের আতিউর রহমান বলেন, তিনি পদত্যাগপত্র লিখে প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় বসে আছেন। তিনি বলেন, ‘আমি অপেক্ষা করছি—প্রধানমন্ত্রী কী বলেন। আমি পদত্যাগ করলে যদি বাংলাদেশ ব্যাংকের ভালো হয়, তাহলে পদত্যাগ করতে আমার দ্বিধা নাই। পদত্যাগপত্র লিখে বসে আছি।’
বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনায় সমালোচিত আতিউর রহমান বলেন, গতকাল সোমবার বিকেলে তিনি ভারত থেকে দেশে ফিরেছেন। রাতে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর বাসায় গিয়ে দেখা করেছেন। অর্থমন্ত্রী তাঁকে বলেছেন, তিনি চলে গেলে বাংলাদেশ ব্যাংক ভালো চলবে। তিনি বলেন, ‘আমি আমার বিবেক দ্বারা চালিত হই। মনে করি, প্রধানমন্ত্রী আমাকে নিয়োগ দিয়েছেন। তিনি না বললে আমার পদত্যাগ করা উচিত হবে না। সাত বছর দায়িত্ব পালন করেছি, বাংলাদেশ ব্যাংককে সন্তানের মতো মনে করেছি। রিজার্ভ থেকে চুরি হোক, এটা আমি কখনো চাইনি।’

এদিকে সাবেক অর্থসচিব ফজলে কবির বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। তিনি বর্তমানে সোনালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান পদে আছেন।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছেন। এর আগে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে টাকা চুরির ঘটনায় পদত্যাগ করেন ড. আতিউর রহমান। ডেপুটি গভর্নর এম আবুল কাশেম পদাধিকার বলে বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত গভর্নরের দায়িত্ব পালন করছেন।
অর্থমন্ত্রী জানান, ফজলে কবির বর্তমানে ওয়াশিংটনে আছেন। আগামী ১৮ মার্চ তিনি দেশে ফিরবেন। দেশে ফেরার পরপরই তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করবেন।
ফজলে কবির ১৯৮০ সালের অক্টোবরে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের রেলওয়ে (পরিবহন এবং বাণিজ্যিক) ক্যাডারে যোগদানের মাধ্যমে তার কর্মজীবন শুরু করেন। পরবর্তী সময়ে ১৯৮৩ সালে বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারে যোগদান করেন। ৩৪ বছরের পেশাজীবনে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়সহ মাঠপর্যায়েও প্রশাসকের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব এবং অর্থমন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব, রেলওয়ে মন্ত্রণালয়ের সচিব, জাতীয় পরিকল্পনা এবং উন্নয়ন একাডেমি, বিসিএস প্রশাসন একাডেমিতে মহাপরিচালক হিসেবে কাজ করেন।
তিনি দেশে ও বিদেশে বিভিন্ন সম্মেলনে যোগদানের পাশাপাশি রাষ্ট্রীয় পর্যায়ের বিভিন্ন নীতিনির্ধারণ বৈঠকে সরাসরি অংশগ্রহণ করেন। তিনি ২০০৮ সালে জাতিসংঘের ফিন্যান্স এবং বাজেট কমিটি সেশনে বাংলাদেশ ডেলিগেশনের নেতৃত্ব দেন। সূত্র. প্রথম আলো ও আলোকিত বাংলাশে।

About Islam Tajul

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমি মাদরাসা কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ

খতিব তাজুল ইসলাম ট্রাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ কওমি অংগন একটি স্বীকৃত ও তৃণমূল প্লাটফর্ম। দেশ ও জাতির ...