মঙ্গলবার, ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ রাত ১:৩০
Home / আকাবির-আসলাফ / কওমি শিক্ষাব্যবস্থার উন্নতি প্রকল্পে আল্লামা মুফতী তাকী উসমানী (দাঃবাঃ) এর কিছু প্রস্তাব

কওমি শিক্ষাব্যবস্থার উন্নতি প্রকল্পে আল্লামা মুফতী তাকী উসমানী (দাঃবাঃ) এর কিছু প্রস্তাব

সংগ্রহ করেছেন: বিশিষ্ট্য মুহাদ্দিস শাইখ জুলফিকার মাহমুদী

প্রস্তাব এক

taqi osmaniদ্বীনী মাদরাসা সমূহে আরবী ভাষার যে গভীর সম্পর্ক রয়েছে, তা বলার অপেক্ষা রাখেনা কিন্তু আজ আমাদের মাদরাসাগুলোতে আরবী সাহিত্য চর্চা দুঃখজনক ভাবে বিলুপ্তির পথে ৷ প্রথম বিভাগে উত্তির্ণ শতকরা 5-6 জন ব্যতিত শুন্যের কোঠায় ৷ না পারে শুদ্ধভারে আরবী লিখতে, না পারে বলতে, এমনকি কিতাবের “মতন ” পড়ার ছাত্রও দিন দিন বিলুপ্তির পথে ৷ এমন কিছু মাদরাসা আমার সফর হয়েছে যেখানে এক জন ছাত্রও পাইনি শুদ্ধ করে “মতন ” পড়ার ৷ আমাদের মাদরাসা সমূহে আরবী আদব,সরফ ,নাহু , বালাগাত শিক্ষার জন্য প্রচুর সময় ব্যয় করা হয় কিন্তুু ফলাফল শুন্য ৷ কেন? গতানুগতিক পড়ানোর পদ্ধতি ছাড়া আমরা আমাদের ছাত্রদের এর বাহিরে নিয়ে যেতে পারিনা ৷ মনগড়া উপস্থাপনা করেই কান্ত হয়ে যাই ৷ কিতাবের দু চারটি উদহারন দিয়েই শেষ করি ৷ কুরআন হাদীস এর উদহারন একেবারেই গৌণ ৷ আমাদের বুঝা উচিত বর্তমানের ছাত্ররা সচেতন হলেও মেধায় অনেক সংক্ষিপ্ত ৷ তাই তাদের অবস্থা বিবেচনা করে, পাঠ্য তালিকা, পাঠদান ব্যবস্থা সাজাতে হবে ৷ এর জন্য প্রশিক্ষণ ব্যাবস্থা করতে হবে ৷ “ইনশার” কিতাবের নোট এটি আরো মারাত্বক ক্ষতিকর ৷ কিন্তুু আমরা যেন বুঝতেই চাইনা কি হচ্ছে, আর কি করছি ৷

taqi usmani1যাই হোক এগুলো থেকে উত্তরনের জন্য আমার প্রস্তাব ৷ (ক) প্রাথমিক স্তর থেকেই আরবী আদব, ইনশা,সরফ, নাহু বিষয়ক এমন ধরনের কিতাব রচনা করে একক পাঠ্য তালিকা সংযোজন করা চাই যেগুলোর মধ্যে নিয়মাবলী বর্ণনা করার সাথে সাথে প্রয়োগ ও ব্যবহারের নিয়ম থাকে ৷ সাথে সাথে কুরআন হাদীসের উদহারন দিয়ে আত্মস্থ করানো হয় ৷ পুরাতন ধাচের কিতাব গুলো বর্তমান ছাত্রদের মেধাশক্তির অনুকূলে না থাকায় উপকৃত হতে পারছেনা ৷ আরব বিশ্বে এ জন্য বহু কিতাব রচিত হয়েছে ৷ প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরে যেমন, ﺍﻟﻨﺤﻮ ﺍﻟﻮﺍﺿﺢ ـ ﺍﻟﻨﺤﻮﺍﻟﻮﺍﻓﻲ ـ ﻣﺬﻛﺮﺍﺕ ﻓﻲ ﺍﻟﻨﺤﻮ ﻭﺍﻟﺼﺮﻑ ـ ﺍﻟﻌﺮﺑﻴﺔ ﺑﻴﻦ ﻳﺪﻳﻚ ইত্যাদী পাঠ্যতালিকায় লাগানো উচিত৷ (খ) আরবী আদব / সাহিত্য শিক্ষাদানের ক্ষেত্রে “ইনশা “তথা আরবী রচনা শিখানোর জন্য আলাদা সময় নির্বাচন করে নিয়মতান্ত্রিক অনুশীলন করানো জরুরী ৷ এ জন্য বহু কিতাব পাওয়া যায় ৷ যেমন, ﺍﻟﻌﺮﺑﻴﺔ ﺑﻴﻦ ﻳﺪﻳﻚ ـ ﺍﻻﺳﻠﻮﺏ ﺍﻟﺼﺤﻴﺢ ﻟﻼﻧﺸﺎﺀ ـ ﻣﻌﻠﻢ ﺍﻻﻧﺸﺎﺀ ইত্যাদী ৷ এমনিভাবে “বালাগাত শিক্ষার ক্ষেত্রে শুধু ﻣﺨﺘﺼﺮ ﺍﻟﻤﻌﺎﻧﻲ ـ কিতাব যথেষ্ট নয় ৷ তাই এখনোও কিছু কিতাব সংযোজন করতে হবে ৷ (গ) আরবী সাহিত্যের রস সৃষ্টির জন্য সবচে উপকারী, গুরুত্বপুর্ন হলো, মাদরাসার পরিবেশে আরবী প্রচলন ঘটানো ৷ এটির জন্য আমার দৃষ্টিতে চতুর্থ শ্রেণী থেকে নিয়ে উপরের ক্লাস আরবীতে হওয়া উচিত ৷ হঠাত এ কাজ মুশকিল যদি হয় তবে কমপক্ষে মাদরাসার সমস্ত ঘোষণা, অফিসিয়াল কাগজ পত্র ও কার্যক্রম পরিক্ষার প্রশ্ন পত্র ও ফলাফল আরবী হওয়া চাই ৷ যাতে ধীরেধীরে সম্পুর্ণ আরবী হয়ে যায় ৷ ( ঘ) আসাতিযা ও ছাত্রদের পরস্পরের কথাবার্তায় আরবী কথোপকথনে হিম্মত বাড়ানো চাই ৷ ( ঙ) একমাস দু মাস পর পর আরবী ভাষণ, রচনার অনুষ্ঠান, আরবী মুকালামার অনুষ্ঠান, হওয়া উচিত ৷ (চলবে ৷)

About Islam Tajul

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমীর নিউ ভার্সন এবং রাষ্ট্র থেকে স্বেচ্ছা নির্বাসন!

সৈয়দ শামছুল হুদা: বাংলাদেশের একটি আলোচিত অন্যতম রাজনৈতিক দলের নাম ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। সরকারে থাকা ...