বুধবার, ২৬শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ বিকাল ৩:১০
Home / অনুসন্ধান / পবিত্র কুরআন নিয়ে দেওয়ানবাগীর চরম বেয়াদবী বক্তব্য! ‘এটা কোন কাজে আসে না’ (ভিডিওসহ)

পবিত্র কুরআন নিয়ে দেওয়ানবাগীর চরম বেয়াদবী বক্তব্য! ‘এটা কোন কাজে আসে না’ (ভিডিওসহ)

দেওয়ানবাগী ভণ্ডইসলাম ধর্মের সবচেয়ে পবিত্র গ্রন্থ হল আল-কোরআন। আর এই পবিত্র কোরআন শরীফ কে নিয়ে দেওয়ানবাগী পীর চরম বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য দেন। যা ছড়িয়ে পড়ে অনলাইনে। অনালাইন থেকে তুলে আনা ভিডিও থেকে চুম্বক অংশ আমাদের নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল,

দেওয়ানবাগী পীর তার বক্তব্যে বলেন, যে মিথ্যাটাকে সত্য প্রমান করে সত্যটাকে মিথ্যা বানিয়ে ফেলা হইছে। যেমন গোটা জাতি জানে কোরআন আছে, হাদিস আছে। কোরআন-হাদিস মতো চললেই আমরা ইমানদার হইতে পারবো, ইমান নিয়া কবরে যেতে পারবো। এটা সম্পূর্ণ ভুল ধারণা।

তিনি বলেন, কোরআন মানুষকে মুক্তি দিতে পারে না। কোরআন মানুষকে সাহায্য করতে পারে না। যদি করতো সাদ্দাম হুসেনের ফাঁসীর কাস্টে ঝুলার আগ পর্যন্ত তার হাতে কোরআন ছিল। কই ফাঁসী থেকে কোরআন তো সাদ্দামকে বাঁচাইল না। যদি পারতো শায়েখ আব্দুর রহমান তার হাতেও কোরআন ছিল। কই কোরআন তো তারে সাহায্য করলো না। কোরআনের মাঝে তো প্রান নাই। কাগজের কালি দিয়ে লিপিবদ্ধ করা, এর মধ্যে রূহ নাই। প্রাণহীন কোরআন আপনাকে সাহায্য করবে কিভাবে?

হেফাজতের সমাবেশের পাশে কোরআন পুড়ানো সম্পর্কে তিনি বলেন, নাস্তিকদের বলি উড়াইয়া যারা ফতুয়া জাড়তাছে, নাস্তিকদের বিরোধিতা করতাসে, হেরা কোরআন পুড়াইয়া কি আস্তিকের কাজ টা করছে? হেরা যে কোরআন পুড়াইল এটা কি আস্তিকদের কাজ? আবার বলা হইছে একটা রাজনৈতিক দলের লোক কোরআন পুড়াইছে। ঐখানে তো হুযুররাই সব, চতুর্দিকে হুযুররা, হুযুরদের মাঝে আরেকটা রাজনৈতিক দল গেলে তার অস্তিত্ব থাকবে? কি যে তাণ্ডব চলতেছিল আমরা আরামবাগ বাসী তা চোখে দেখেছি। কারণ আমাদের চতুর্দিকে যুদ্ধ চলছিলো।

বি: দ্র: আমাদের লক্ষ্য ধর্মীয় উন্মাদনা তৈরি নয় বরং সত্যটা কে সামনে আনা।

সূত্র : নিউজ অর্গান টোয়েন্টিফোর.কম

About Abul Kalam Azad

এটাও পড়তে পারেন

কওমি মাদরাসা কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ

খতিব তাজুল ইসলাম ট্রাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ কওমি অংগন একটি স্বীকৃত ও তৃণমূল প্লাটফর্ম। দেশ ও জাতির ...