সোমবার, ২৫শে অক্টোবর, ২০২১ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ সকাল ১১:০৫
Home / প্রতিদিন / নাস্তিকদের জন্য আমার চোখের ইশারাই যথেষ্ট: শামিম উসমান

নাস্তিকদের জন্য আমার চোখের ইশারাই যথেষ্ট: শামিম উসমান

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন, ‘নাস্তিকদের জন্য আমার চোখের ইশারাই যথেষ্ট। কিন্তু আমি নারায়ণগঞ্জে একটি নজির স্থাপন করতে চাই। যারা ধর্মের নামে কটূক্তি করে তাদের বিরুদ্ধে সবাইকে নিয়ে আমি এক মঞ্চে প্রতিবাদ করতে চাই। তাদের প্রতি ঘৃণা প্রদর্শন করতে চাই।’

বুধবার (১৯ এপ্রিল) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জের মাসদাইরে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কেন্দ্রীয় মসজিদে শহরের আলেম ওলামাদের নিয়ে আলোচনার সময় এসব কথা বলেন তিনি।

শামীম ওসমান আরও বলেন, ‘আমার ধর্মের নামে কটূক্তিকারীদের বিরুদ্ধে শুক্রবার জুমার নামাজের পর ডিআইটি জামে মসজিদের সামনে সমাবেশ করবো। সেখানে সব দলের অংশগ্রহণ থাকবে। সেখানে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, হেফাজতসহ সব মানুষের অংশগ্রহণ থাকবে। আল্লাহর রহমতে আমার ডাকে কয়েক লাখ মানুষের সমাবেশ হয়।’

এর আগে বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা হেফাজতে ইসলামের আমীর মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান বাদী হয়ে জেলার সংস্কৃতিকর্মী রফিউর রাব্বির বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার অভিযোগে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলা আদালত গ্রহণ করে আগামী ৭ মে’র মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে ডিবিকে নির্দেশ দিয়েছে। মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, শ্রুতি সাংস্কৃতিক একাডেমির ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে ৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়া এলাকার শহীদ মিনারে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে রফিউর রাব্বি ইসলাম ও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হেনে বক্তব্য রেখেছেন।

তিনি বলেছিলেন, ‘যদি বাংলার মানুষ জানতো সংবিধান বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম দিয়ে শুরু হবে, দেশ হবে সাম্প্রদায়িকতার দেশ, তবে ৩০ লাখ শহীদদের কেউ মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করতো না।’ মামলার বাদী অভিযোগ তোলেন, রাব্বির সেই বক্তব্য সারাদেশের কোটি কোটি ধর্মপ্রাণ মুসলমানের ওপর ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার শামিল। তাছাড়া এটা মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা বিষয়ে কটূক্তির শামিল।

এদিকে, বুধবার বিকেলে শামীম ওসমানের ওই সভার প্রথম সারিতেই রাব্বির বিরুদ্ধে মামলার বাদী ফেরদাউসকে দেখা গেছে।

শামীম ওসমান প্রায় এক ঘণ্টা দীর্ঘ বক্তব্যে বলেন, ‘‘নারায়ণগঞ্জের মতো একটা শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত শহীদ মিনারে দাঁড়িয়ে ‘বিসমিল্লাহ’কে নিয়ে এত বড় কথা বললো তবুও কেউ প্রতিবাদ করলো না, প্রতিবাদ করার মতো একটা মানুষও খুঁজে পাওয়া গেল না? একা হেফাজতের ফেরদাউস মামলা করলো, আর দু’একজন কথা বললো তা ছাড়া কেউ কিছু বললো না। এটা হেফাজতের ফেরদাউস না, এটা একজন মুসলমান হিসেবে ফেরদাউস মামলা করেছে।’

শামীম ওসমান বলেন, ‘আজ আমি সবাইকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলতে চাই, এই নারায়ণগঞ্জে কেউ যদি ইসলাম ধর্মকে নিয়ে কটূক্তি করে তবে তার আর কোনও ছাড় নেই।’

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

About Abul Kalam Azad

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমি মাদরাসা কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ

খতিব তাজুল ইসলাম ট্রাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ কওমি অংগন একটি স্বীকৃত ও তৃণমূল প্লাটফর্ম। দেশ ও জাতির ...