বুধবার, ১৭ই আগস্ট, ২০২২ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ বিকাল ৫:০৮
Home / প্রতিদিন / কওমি মাদরাসার কারণেই দেশের মানুষ এত ধর্মপরায়ন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কওমি মাদরাসার কারণেই দেশের মানুষ এত ধর্মপরায়ন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

গতকাল ৩ মার্চ শুক্রবার বিকালে রাজধানীর ইসলামিক ফাউন্ডেশন মিলনায়তনে বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষক সমিতি এর উদ্যোগে বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড-বেফাক এর মহাসচিব মাওলানা আব্দুল জব্বার জাহানাবাদী রহ. ও ক্বারী উবায়দুল্লাহ রহ. এর জীবন ও কর্ম শীর্ষক আলোচনা সভা ও দোয়ার মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

কওমি শিক্ষক সমিতির পরিচালক মুফতি ইমরানুল বারী সিরাজীর সঞ্চালনায় ও আতাউর রহমান আতিকী এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওলাদে রাসূল, শায়খুল কুররা, সাইয়েদ নাছের বিল্লাহ মক্কী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, কওমি মাদরাসার ব্যাপারে আমি যতটুকু দেখলাম, যে তারা একটি ষড়যন্ত্রের শিকার হচ্ছে। আপনাদের কথাগুলো শুনে আমি তা যাচাই করে সবগুলো কথার সত্যতা পেয়েছি। কওমি মাদরাসায় কোনো সন্ত্রাস নেই। সন্ত্রাসের সাথে কোনো কওমি মাদরাসা সম্পৃক্ত নয়। এ বিষয়টি এখন বেশ ভালোভাবেই বিশ্বাস করতে এবং সমাজের সকলকে বিশ্বাস করাতে পেরেছি।

তিনি বলেন, আমি সারা পৃথিবী ঘুরে বেড়িয়েছি। অনেক মুসলমান রাষ্ট্র ভ্রমণ করেছি। কিন্তু বাংলাদেশের মুসলমানদের মতো এতো ধর্মপরায়ণ আর কাউকে পাইনি। এর কারণ এই কওমি মাদরাসা এবং কওমি মাদরাসার উলামায়ে কেরাম।

তিনি মাওলানা আব্দুল জব্বার জাহানাবাদী রহ. সম্পর্কে বলেন, তার সাথে আমার দীর্ঘ দিনের সম্পর্ক রয়েছে। কওমি মাদরাসার স্বীকৃতির ব্যাপারে তিনি অনেক বার আমার সাথে বসেছেন। তার মতো এতো মেধাবী ও কর্মঠ মানুষ আমি খুব কম দেখেছি। আমি তার রুহের মাগফেরাত কামনা করছি।

ক্বারী উবায়দুল্লাহ রহ. সম্পর্কে তিনি বলেন, তিনি অনেক ভালো মানুষ ছিলেন। আপনারা আপনাদের বক্তব্যে বলেছেন, তার নামে সরকারি বাড়ি ছিলো। এখন নেই। আপনারা আমাকে বাড়িটির কাগজপত্র দিলে আমি বাড়িটির ব্যবস্থা করে দিবো ইনশাআল্লাহ।

স্মরণসভায় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন আল্লামা মুফতি আব্দুল হান্নান, মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী, আল্লামা আশরাফ আলী, মুফতি মুহাম্মাদ ওয়াক্কাস, আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী, আল্লামা আব্দুল হামিদ, আব্দুল লতীফ নিজামী, আল্লামা আনোয়ার শাহ, ড.শহীদুল ইসলাম ফারুকী, বেফাকের মহাপরিচালক অধ্যক্ষ মাওলানা জোবায়ের চৌধূরী, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মুফতি গোলাম মুহিউদ্দীন ইকরাম, শায়খ উসমান গণী, মুফতি মাছুম বিল্লাহ নাফী, মুফতি রেদওয়ানুল বারী সিরাজী, মুফতি রেজাউল কারীম, আশেকুর রহমান কাসেমী, মুফতি আরিফ বিল্লাহসহ দেশবরেণ্য উলামায়ে কেরাম।

About Abul Kalam Azad

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমি মাদরাসা কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ

খতিব তাজুল ইসলাম ট্রাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ কওমি অংগন একটি স্বীকৃত ও তৃণমূল প্লাটফর্ম। দেশ ও জাতির ...