বুধবার, ২৬শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ রাত ৯:০৩
Home / কওমি অঙ্গন / চেতনায় কওমী মাদরাসা; সবার দৃষ্টি আকর্ষণ

চেতনায় কওমী মাদরাসা; সবার দৃষ্টি আকর্ষণ

হাসান জামীল ::

hassan-jamilচেতনায় কওমি মাদ্রাসার ব্যানারে যে কার্যক্রম তার মৌলিক বিষয়গুলোর একটি হচ্ছে মুরুব্বীদের সম্মান রক্ষা। আমাদের কারো কাজ ও কথায় যেনো কোনো সম্মানহানী না হয় সে বিষয়টিই পেয়েছে সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য।
পরিস্থিতি কতোটা ঘোলাটে তা কারো অজানা নয়! কিন্তু গতকালকের একটি সংবাদে আমি জ্বলছি, ফুঁসছি! দেশের স্বনামধন্য এক পরিবারের গর্বিত বুযুর্গ আলেম অত্যন্ত দুঃখভরা কণ্ঠে জানালেন বিষয়টি। যে পরিবারের অবদান সারা বাংলার ঘরে ঘরে। (নাম প্রকাশ সমীচীন মনে করছি না)
তাঁদের বিভিন্ন দ্বীনী খেদমতের একটি হচ্ছে মহিলা মাদরাসা পরিচালনা। ফেৎনার এ যুগে তাদের সিদ্ধান্ত মাদরাসায় থাকবে না কোনো পুরুষ শিক্ষক। সাধুবাদ জানাই তাদের এ সিদ্ধান্তের। কিন্তু অসাধু মানুষ বুঝবে কি তাদের এ মহৎ উদ্যোগের মূল্য! আর তাই ঘটালো এমন ভয়ঙ্কর ঘটনা।

এবার শুনুন আসল ঘটনা;
বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়্যার পরিদর্শনের কথা আমরা জানি। সম্মানিত পরিদর্শকগণ বেফাক আওতাভূক্ত মাদরাসাগুলোর পড়াশোনা, পরিচালনার সিস্টেমের খোঁজখবর নেন, এটা অত্যন্ত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ! এরই অংশ হিসেবে ০১৮৫৭৬৯২৭৬২ নম্বর দিয়ে একজন ফোন করে আকাবিরতুল্য সেই মহিলা মাদরাসার মুহতামিম হযরতকে।

-আমরা আসছি আপনাদের প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনে।
-জ্বি আসুন। তবে সাথে মহিলা পরিদর্শক যেনো থাকে, কারণ আমাদের এখানে কোনো পুরুষ গ্রহণযোগ্য নয়।
-না, আমাদের কোনো মহিলা পরিদর্শক নেই; পুরুষই আসবে!
-এটা কেমন কথা?! মহিলা মাদ্রাসা নিয়ন্ত্রণ করবেন মহিলা ছাড়া?!
-বেফাকভূক্ত মহিলা মাদ্রাসার শিক্ষিকা তার মাহরামসহ আসুক!
তেলেবেগুনে জ্বলে উঠলো কলার!
-আপনারা সহযোগিতা না করলে বেফাক থেকে আপনাদের বহিস্কার করা হবে! (আশ্চর্য! সে বহিষ্কার করার কে?!)
-তাহলে কিছু করার নেই!
কিছুক্ষণ চেঁচামেচি এবং উত্তপ্ত বাক্য ঝাড়ার পর অত্যন্ত আপত্তিকর কথায় ( ধুৎ শালা!!) ফোন রাখলো সেই কুলাঙ্গার!;

আসতাগফিরুল্লাহ!!!

কে এই কুলাঙ্গার?! আমি জানতে চাই!
বেফাক সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

পরিস্থিতি যখন ভয়ঙ্কর ঘোলাটে, আকাবির ওলামায়ে কিরাম এবং বেফাকের অস্তিত্ব এবং সম্মান রক্ষায় যখন লড়ে যাচ্ছি দীর্ঘদিন তখন এসব কুলাঙ্গারদের চিহ্নিত করতে না পারলে দুর্ভোগ আমাদের অত্যাসন্য!

বারবার এসব চুনাপুঁটিদের আচরণে বিব্রত হচ্ছেন আকাবিররা! বর্তমান পরিস্থিতিতে তিনি হয়ত বেফাকের বিরুদ্ধ অবস্থানে; কিন্তু তিনি তো অযৌক্তিক কোনো আবদার করেন নি?! তাই বলে এমন আচরণ?!

সময় এসেছে এসব কুলাঙ্গারদের চিহ্নিত করার, টেনে জিব ছিড়ে ফেলার; সব সইবো, বড়দের অসম্মান আমি সইবো না!

সংশ্লিষ্টদের কাছে বিনয়ী নিবেদন, এই সন্ত্রাসী কুলাঙ্গারকে চিহ্নিত করে আজীবন বেফাক থেকে বহিষ্কার করে প্রিয় প্রতিষ্ঠানকে কলঙ্কমুক্ত করুন!

About Abul Kalam Azad

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমি মাদরাসা কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ

খতিব তাজুল ইসলাম ট্রাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ কওমি অংগন একটি স্বীকৃত ও তৃণমূল প্লাটফর্ম। দেশ ও জাতির ...