মঙ্গলবার, ২৮শে জুন, ২০২২ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ বিকাল ৩:৩৪
Home / আকাবির-আসলাফ / শিক্ষকদের প্রভিডেন্ট ফান্ড করা হোক কওমী মাদরাসায় …..

শিক্ষকদের প্রভিডেন্ট ফান্ড করা হোক কওমী মাদরাসায় …..

লাবীব আব্দুল্লাহ::

কয়েক বছর আগে আমার এক উস্তায হঠাৎ ইন্তেকাল করলেন৷ তিনি শীর্ষ মুহাদ্দিস ছিলেন৷ একটি মসজিদের ইমাম খতীব ছিলেন৷ তিনি থাকতেন মসজিদের পক্ষ থেকে দেওয়া অপরিসর একটি বাসায়৷ দুই ছেলে৷ ছোটটা পাঁচ বছরের৷ হঠাৎ তিনি চলে গেলেন না ফেরার দেশে৷ জানাযায় গেলাম৷ দাফনে শামিল হলাম৷ কান্না করলাম৷10599196_1698802130362842_5866865326023739767_n

এই উস্তাযের বিধবা স্ত্রীকে কিছু সহযোগীতা করা যায় কি না এবং ছেলেদের পড়া লেখার কী ব্যবস্থা হবে এ নিয়ে একাধিক বৈঠকে ছিলাম৷ তিনি যে মাদরাসায় পড়াতেন সেখান থেকে কিছু করা যায় কি না তা নিয়েও বৈঠকে ছিলাম৷ কমিটির দরদের পরিমানও দেখেছি৷ অবহেলা ও তাচ্ছিল্য ভাবও দেখেছি৷ দেখেছি অনুকরনা করার মানসিকতা এবং কর্তপক্ষের উদাসীনতা৷

অবশেষে দেখা গেলো তার কোনো টাকাও জমা নেই প্রভিডেন্ট ফান্ডে৷ এই নামে কওমী মাদরাসায় কোনো ফান্ডও নেই৷ হয়তো কোথাও থাকতে
পারে৷ বিধবা স্ত্রী কয়েক দিন মসজিদের বাসায় থেকে বিদায় নিলেন৷ নিজস্ব জায়গা আছে শহরে কিন্তু কোনো জমানো টাকা নেই৷ এই শিক্ষক কোনো শিক্ষক সমিতির সদস্যও না৷ মাদরাসায় শিক্ষক কমিটি করাও নিষেধ৷ বিপন্ন এই পরিবার হারিয়ে গেলো৷ ছেলেদের পড়া লেখাও হলো না৷

তিনি মৃত্যুর সময় অসিয়ত করে গিয়ে ছিলেন যেনো সন্তানদের প্রতি খেয়াল রাখা হয়৷ কিন্তু তিনি যে মাদরাসায় পড়াতেন সেই মাদরাসার আঙ্গিনাতেও যেনো সেই বিপন্ন বিধবা না আসতে পারেন সেই আয়োজন দেখেছি৷ সেই কর্তপক্ষ ছিলো সেই উস্তাযে ছাত্র৷ সেই মহিলা পরে দর্জিগিরি করে কিছু দিন চলেছেন এর পরের কাহিনী দুঃখের এবং অবর্ণনীয় কষ্টের৷

প্রস্তাবনা:
সরাকার বেতন দ্বিগুন করেছে সরকারী চাকুরিজীবীজের৷ মাদরাসায় কমপক্ষ বিশতম গ্রেডে প্রথম গ্রেডের বেতন বা অজিফা নির্ধারণ করা হোক৷ কমিটি নামের জালেমরা কেন বোঝতে চায় না তাদেরও সংসার ও পরিবার আছে৷ বাজারে তাদেরও যেতে হয়৷ এই জালেমদের বাদ দেওয়া হোক মাদরাসা কমিটি থেকে৷ যারা সংকীর্ণ শিক্ষকদের বেতনের বেলায়৷ এবং শিক্ষকদের জন্য প্রভিডেন্ট ফান্ড জাতীয় কিছু করা হোক৷ এককালীন অবসরের সময় বা যখন অন্যায় বা শিক্ষককে বাদ দেওয়ার প্রক্রিয়া
করা হয় তখন যেন তিনি নকদ কিছু টাকা পান৷ শিক্ষকদের অবহেলা করলে মাদরাসা অবনতি হবে৷ অবক্ষয় হবে এবং শুধু মাদরাসার ভবন থাকবে দাঁড়িয়ে মেধাশূন্য পরিবেশে৷

লেখক: চিন্তক গবেষক সাহিত্যিক মুহাদ্দিস সমাজ সংস্কারক।

About Islam Tajul

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমি মাদরাসা কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ

খতিব তাজুল ইসলাম ট্রাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ কওমি অংগন একটি স্বীকৃত ও তৃণমূল প্লাটফর্ম। দেশ ও জাতির ...