শুক্রবার, ২১শে জুন, ২০২৪ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ রাত ১:৪৪
Home / অনুসন্ধান / জামাতি ইসলামের সাথে কওমি উলামাদের মৌলিক পার্থক্যটা এখানেই!

জামাতি ইসলামের সাথে কওমি উলামাদের মৌলিক পার্থক্যটা এখানেই!

খতিব তাজুল ইসলাম:

জামাতি ঘরানার কিছু দার্শনিক মায়ের চেয়ে মাসির মহব্বত দেখাতে গিয়ে লম্বা লম্বা আর্টিক্যাল প্রসব করছেন। বলছেন যে আমরা ৯৬তে আওয়ামীলীগের সাথে ঘাটছড়া বেঁধে যে ভুল করেছিলাম সে ভুলটা আবার কওমিরা করে ফেললো। কওমি সনদের স্বীকৃতি নিয়ে কুড়াল মারলো নিজেদের পায়ে! বলছেন শাপলার রক্তের সিড়িঁ বেয়ে এ সনদ স্বীকৃতির অর্জন খুব চড়া মূল্য পরিশোধ করতে হবে।
আমি বলতে চাই কওমিরা যদি তাদের পায়ে কুড়াল মারে চড়া মূল্য পরিশোধ করে পায়ে শেকল পরে তাতে তো আপনাদের তবলা বাজানোর কথা। আপনারা শুকরানা নামাজ আদায় করে আওয়ামীলীগের জন্য দোয়া করবেন যে তারা আপনাদের জাত দুশমনদের কাবু করতে পেরেছে!?
কওমিরা বিক্রি খেলে বাম রাম মাজার কবর পুজাঁজারিদের এতো আহাজারি কেন?
আমরা জানি আপনারা শুধু ক্ষমতার জন্য রাজনীতি করেন। যা করার মসনদে বসেই করবেন। তাতে হাজার বছর লাগুক। গোমরাহ হয়ে গোটা জাতি মরুক তাতে আপনাদের কিছু যায় আসেনা।
এজন্যই তো শিক্ষানীতি নারিনীতি মুর্তি কাদিয়ানী সহ সকল ইসলাম বিরোধী কার্যকলাপের বিরুদ্ধে কওমির উলামাগণ সদা তৎপর থাকেন; আর আপনারা বসে বসে আংগুল চুষেন!
কওমির উলামাগণ মসনদের দাস নন। ক্ষমতার লোভি নন। পদ পজিশন আগে নয় মানুষের ইসলাহ সর্বাগ্রে। আপনারা ক্ষমতার জন্য আতাতঁ করেন, নির্বাচনের জন্য জেহাদ করেন, নেতার মুক্তির জন্য শাহাদত বরণ করেন, কিন্তু ইসলামের জন্য আংগুল কাটতেও অপারগ। অপরদিকে কওমির উলামারা ভাবেনা ভোট পাবে কিনা, রাজনীতিতে এগুতে পারবে কিনা। সংসদে কটা সিট হাসিল করতে হবে এমন ভাবনা তাদেরকে আমর বিল মা’রুফ নেহি আনিল মুনকার থেকে বিরত রাখতে পারেনা।
মনে আছে কি, প্রভাব বিস্তারের নামে কলেজ ভার্সিটিতে কত খুন মার্ডার করেছেন? কত মায়ের বুক খালি হয়েছে? হেন খারাপ কাজ নেই যা আপনারা ক্ষমতার জন্য জায়েজ মনে করেন না! কিন্তু কওমি আলেমদের মুসলমান হত্যার কোনো নজির দেখাতে পারবেন? না, পারবেন না।
কওমির উলামারা চায় সকল মানুষ জান্নাতি হউক, সবাই হেদায়েতের পথে আসুক; কিন্তু আপনারাতো নিজেদের জন্য জান্নাতের ঠিকা নিয়ে রেখেছেন। এখানে আর কারো প্রবেশাধিকার নেই।
শেখ হাসিনা কওমি উলামাদের সম্মান প্রদর্শন করায় আপনাদের কলিজায় আগুন ধরেছে। ধরবে না কেন? আপনাদের তাফসির মাহফিলের গোটা বয়ান পরনিন্দা আর গীবতখোরী ছাড়া আর কিছুই ছিলোনা। মানুষকে হেদায়েতের পথে নিয়ে না এসে দূরে ঠেলে দেয়া হলো আপনাদের আদর্শ।
আজ আমাদের উলামারা শেখ হাসিনাকে ইসলামের সৌন্দর্য ক্ষমা ও মহানুভবতা দেখিয়ে এসেছেন। আর এটাই হলো রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ও সাহাবার আখলাক্ব।

গালি কোনো সমাধান নয় গজব ডেকে আনা ছাড়া। আপনারা শেখ মুজিবের লাশের উপর হাঁটতে সুখবোধ করেন। আপনারা মানুষের উপকারকে ভুলতে ভালবাসেন। জামাত বিএনপি মিলেই এ দেশে বিদ্বেষের রাজনীতির সয়লাব ঘটিয়েছে। কিন্তু কওমির উলামারা কারো সাথে কখনো আপোস করেননি। এদেশের ৫০ লক্ষ কওমি ছাত্রদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে সরকারকে বাধ্য করেছেন সনদের স্বীকৃতি দিতে। এই স্বীকৃতি দিতে আপনাদের কলিজার বন্ধু বিএনপি তখন চেষ্টা করেনি? করেছে তবে তাদের আপনারাই ভুল ‍বুঝিয়ে স্বীকৃতিকে গলাটিপে হত্যা করেছিলেন। আজ আওয়ামীলীগ দিলে বিকিকিনি হয়ে যায়! আচ্ছা তখন বিএনপি দিলে কি তা দাসখত হতো? বিএনপি এখন পাগলের প্রলাপ বকছে। সরকারের ভাল এই কাজকে সাধুবাদ দিয়ে তাদের রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও দুরদর্শিতার পরিচয় দিতে পারতো। কিন্তু করলো ও দেখালো খারাপ দৃষ্টিভংগি। তাহলে বলবো তখন বিএনপির কাছহতে স্বীকৃতি না নেয়াটা সঠিক ছিলো। যার প্রমাণ আজ তারা তাদের ভাষায় দিয়ে যাচ্ছে। আচ্ছা বলুন, একটা শিক্ষার স্বীকৃতির নাম যদি হয় বিকিকিনি তাহলে স্কুল কলেজ আলিয়ায় যারা লেখাপড়া করে তারা কাদের কাছে আগে বিকি খেয়ে আছে? আমি জানি আপনাদের কাছ হতে কোনো সদুত্তর পাবোনা।
মনে রাখুন কওমি সনদের স্বীকৃতি তার আপন জাগায়। আজও যদি প্রয়োজন পড়ে তাহলে উলামায়ে দেওবন্দ রাস্তায় নামতে এক সেকেন্ড কালক্ষেপন করবেন না তা কি তোমাদের জানা আছে?! ইসলামি হুকুমতের ধ্বজাধারিরা আর কত মুসলমানদের প্রতারিত করে যাবে বলতো দেখি?!

About Islam Tajul

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমি মাদরাসা কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ

খতিব তাজুল ইসলাম ট্রাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ কওমি অংগন একটি স্বীকৃত ও তৃণমূল প্লাটফর্ম। দেশ ও জাতির ...