সোমবার, ২৫শে অক্টোবর, ২০২১ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ সকাল ১০:১৭
Home / প্রতিদিন / নিজেকে উজাড় করে দেব: মেয়র আরিফুল হক

নিজেকে উজাড় করে দেব: মেয়র আরিফুল হক

কমাশিসা : সিলেটের মেয়রের চেয়ারে বসে আরিফুল হক সাংবাদিকদের বলেন, ‘আদালতের নির্দেশে চেয়ারে বসতে পেরেছি এটা আমার জন্য নয়, দেশের জনগণ তথা সম্মানিত সিলেট নগরবাসী ভোটারদের জন্য মঙ্গলজনক। আশা করি জনপ্রতিনিধিদের হয়রানিমুক্ত রাখতে সরকার উদ্যোগ নেবে। আমাকে নগরবাসী ভোট দিয়ে তাঁদের নাগরিক অধিকার, সমস্যার সমাধানের একজন প্রতিনিধি হিসেবে নগর ভবনে এনেছেন। তাঁদের অধিকার ক্ষুণ্ন করা অনুচিত। আমি মনে করি এটি একটি কালো আইন। স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞসহ সরকারের নীতিনির্ধারকদের কাছে আমি আহ্বান জানাই, এ বিষয়ে আবার ভাবুন। নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের বারবার হয়রানি করা হচ্ছে, এটি সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক বলে অনেকেই বলছেন। বিষয়টি নিয়ে নীতিনির্ধারকেরা ভাববেন আশা করছি।’

সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী আজ বৃহস্পতিবার বেলা তিনটা ২১ মিনিটের দিকে মেয়রের চেয়ারে বসেন। এর আগে বেলা তিনটার দিকে তিনি নগরের কুমারপাড়ার বাসা থেকে বের হন। গাড়ি দিয়ে নগর ভবনে পৌঁছালে তাঁকে সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলরসহ সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা ফুল দিয়ে বরণ করেন।

আরিফুল হক চৌধুরীর সিলেটের মেয়র মেয়র পদে ফিরতে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনটি কার্যতালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়। আজ বৃহস্পতিবার চেম্বার বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি কার্যতালিকা থেকে বাদ দেন। এর ফলে মেয়র হিসেবে আরিফুলের স্বপদে ফিরতে আইনগত কোনো বাধা দূর হয়।

দুই বছর তিন মাস মেয়রের দায়িত্ব পালন না করতে পারার বিষয়ে কোনো আইনি ব্যবস্থা নেবেন কি না, এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘এটা নিয়ে এই মুহূর্তে কিছু বলছি না। ভবিষ্যৎ কী সেটা দেখে ব্যবস্থা নেব।’

নতুন করে দায়িত্ব পালনে সরকার মহলের সহযোগিতার পাশাপাশি নগরবাসীরও সহায়তা চান আরিফুল। তিনি বলেন, ‘আমি নির্বাচিত হয়ে বলেছিলাম নগরপিতা বা মেয়র নই, নগরবাসীর সেবক হয়ে পাঁচ বছর কাটাতে চাই। আমার মেয়াদকালের দুই-আড়াই বছর কেটে গেল বরখাস্ত অবস্থায়। এখন সামনে আছে মাত্র এক বছর। এই এক বছরে আমি নিজেকে উজাড় করে দেব। এ জন্য সকলের সহযোগিতা চাই।’

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলা শেষে সিটি করপোরেশনের দাপ্তরিক কাজ শুরু করেন।

About Abul Kalam Azad

mm

এটাও পড়তে পারেন

কওমি মাদরাসা কল্যাণ ট্রাস্ট, বাংলাদেশ

খতিব তাজুল ইসলাম ট্রাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ কওমি অংগন একটি স্বীকৃত ও তৃণমূল প্লাটফর্ম। দেশ ও জাতির ...