শনিবার, ১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ রাত ১০:৫৩
Home / কর্মসংস্থান / ‘আল-কাসিবু হাবীবুল্লাহ’- উপার্জনকারী আল্লাহর বন্ধু

‘আল-কাসিবু হাবীবুল্লাহ’- উপার্জনকারী আল্লাহর বন্ধু

খতিব তাজুল ইসলাম::

13020169_471423796401968_1613324946_nএই চিত্রকর্ম বা ক্যালিওগ্রাফিটায় বার বার আমার চোখ আটকে যায় ! যতবার ইসতানবুল ব্লু মসজিদ বা সুলতান আহমাদ মসজিদে গেছি ততোবার এই লেখককে স্যালুট করতে ইচ্ছে জাগে ! ভাবি কেনই বা এতোবড় সম্মানের জাগায় ফ্রেইমটি লটকানো আছে ? ১২৭৯ হিজরী সনের আর্ট …! “আল-কাসিবু হাবীবুল্লাহ” “উপার্জনকারী আল্লাহর বন্ধু” আমার জীবনের সাথে মিলে যাওয়া খুব পছন্দের একটি আর্ট।12472603_480794415455103_3800476871554646458_n

ফেবু খুলতেই চোখে পড়লো তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র শফিউর’র কাহিনী। রিকশা চালিয়ে মার ভরণ-পোষণের সাথে নিজের লেখাপড়ার খরছ চালাচ্ছে।

‘শফিউর তৃতীয় শ্রেনীতে পড়ে,দোকানে কাজ নিয়ে মাঝে এক বার পড়ালেখা বন্ধ হয়ে গিয়েছিলো তাই এখন রিক্সায় চালায়।মা’কে ভিক্ষা কিংবা মানুষের বাড়িতে কাজও করতে হয় না এবং তার পড়ালেখাও চলছে,সে কারো করুনার পাত্র হতে চাই না তাইতো স্কুল ফিরে রাত ৯ টা পর্যন্ত ভাড়ায় রিক্সা চালায়, মাহাজনকে দিয়ে যা থাকে তা দিয়েই দিব্যি চলে মাকে নিয়ে শফিউরের সংসার।শফিউর ভাই তোমাকে আমাদের স্যালুট । তোমার কাছে এই দেশের ১৬ কোটি মানুষের অনেক কিছু শেখার আছে।’

শফিউররা রিকশাই চালাবে। আর আতিয়াররা আটশো কোটি নয়শো কোটি ডলার রিজার্ভ চুরি হওয়ার অপরাধে পদত্যাগ করবে এইযা। লোটেরাদের এই স্বর্গরাজ্যে শফিউরদের দিকে ফিরে দেখার কে আছে? পাড়া বস্তিদের কদর বাড়ে ভোটের সময় এলে। এককাপ চা দুই পেকেট সিগারেটই হলো একটি ভোটের মুল্য। ভোট পেয়ে নেতা হাসেন।13023388_471429109734770_155854983_n গলায় নেন কোরবানীর হাটের ফুলের মালা। নিজের জন্য নিয়ে আসেন লেইটেস্ট মডেলের কোটি টাকার ট্যাক্স ফ্রী পাজেরো। স্ত্রীর জন্য বিএম ডাব্লিউ, ছেলের জন্য স্পোর্টস কার। শফিউররা তখনো বস্তিতে কাঁদে। আজকাল ১কাপ চা্ আর ২পেকেট সিগারেটের রেওয়াজ ও শেষ। বন্দুকের জোরে ক্ষমতা দখল করে অটো সিস্টেমে ভোট আর ক্ষমতার সুখ। সেদিন দেখলাম বস্তির লোকদের তাড়িয়ে দেওয়া হলো এক কাপড়ে। একটি দেশ আছে সরকার প্রশাসন সবই আছে কিন্তু নাই গরিবদের বসাবাসের কোন অধিকার। যে সাম্যবাদীরা আগে গরিব দুখী শ্রমিক মেহনতি মানুষের কথা বলে মিছিল করতো রাস্তা কাপাঁতো, বক্তৃতায় ফুটতো অসহায়দের জন্য জারিজুরি; তারাও এখন মুখে কুলূখ এটে নিয়েছে।

কাল দেখলাম ইউটিউবে একজন খান্দানী ওলীয়ে কামীল পীরে অসম্ভব এর কথা। চট্টলায় বয়ান দিয়ে বাড়িতে ফিরে যাচ্ছেন হেলিকপ্টার করে। তিনি নাকি গদ্দিনিশীন পীর। পাছে আছে ডক্টরেট ডিগ্রী। উপর এবং নীচের অংশ থেকে পেটের অবস্থা এতোটাই খারাপ হাটতে তার যেমন কষ্ট হচ্ছে তেমনি হেলিকপ্টারের সীটেও বসতে অসুবিধা। বয়ান হলো- আমি চ্যালেঞ্জ দিলাম যারা বলে কোরআন হাদীসে মীলাদ ক্বীয়াম নেই তারা আসুক। ইউটিউবে দেখে নিবেন চল্লিশটি বই বেছে আমার একটি গুরুত্বপুর্ণ বয়ান আছে।……….?! পীর সাহেবদের সময়ও নেই শফিউরদের পানে তাকাবার। পাশে সালাম মুসাফাহার সংগে ফকীরের ঝুলার দিকে তাকে উনাদের লোভি চোখ হাদিয়া তোহফা যে দিলনা বেয়াদবটি?

About Islam Tajul

mm

এটাও পড়তে পারেন

নুসরাত হত্যাকান্ডের ধারাবাহিক রিপোর্ট!

পিবিআই ব্রিফিং ১৩ এপ্রিল ঢাকা: ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে ...