বৃহস্পতিবার, ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ সকাল ১১:১৫
Home / আকাবির-আসলাফ / ‘ধর্ম যার যার উৎসব সবার’ উক্তি ইসলাম বিরোধী: হেফাজতে ইসলাম

‘ধর্ম যার যার উৎসব সবার’ উক্তি ইসলাম বিরোধী: হেফাজতে ইসলাম

আল্লামা-শফি‘ধর্ম যার যার, উৎসব সবার’ এমন উক্তি বা বক্তব্য দেওয়াকে সম্পূর্ণ ইসলাম ও যুক্তি বিরোধী বলে মন্তব্য করেছেন হেফাজতে ইসলামের আমির ও দারুল উলূম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালক আল্লামা শাহ্‌ আহমদ শফী।
আজ রোববার রাতে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আমিরের প্রেস সচিব মাওলানা মুনির আহমদ স্বাক্ষরিত পাঠানো এক বিবৃতিতে এ মন্তব্য করেন তিনি। মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বিবৃতি পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেন প্রেস সচিব মাওলানা মুনির।
বিবৃতিতে হেফাজত আমির হতাশা প্রকাশ করে বলেন, ইদানিং সরকারের দায়িত্বশীল পর্যায়সহ কিছু কিছু মহল থেকে এমন স্লোগান তোলা হচ্ছে, ‘ধর্ম যার যার, উৎসব সবার’। এটা কুফরী উক্তি।
বিবৃতিতে তিনি উল্লেখ করেন, হিন্দু ধর্মানুসারীরাও এ ধরণের বক্তব্য স্বীকার করে না। যদি করত, তাহলে ভারতীয় মুসলমানদের পবিত্র কোরবানী’র উৎসবে হিন্দুরা হিংসাত্মক আক্রমণ ও বাধা দিত না। গরু কুরবানীর হালাল কাজে বাধা দিয়ে মুসলমানদেরকে হত্যা করতো না।
হেফাজত আমির বলেন, গরু জবাই করা ও গরুর গোশত খাওয়া হিন্দুশাস্ত্রে নিষিদ্ধ থাকলেও ইসলামে নিষিদ্ধ নয়। তাহলে ধর্মনিরপেক্ষ ভারতে মুসলমানদের এই ধর্মীয় অধিকারে কেন বাধা দেয়া হচ্ছে? অপরদিকে মূর্তিপূজা ইসলামে সম্পূর্ণ হারাম, অথচ হিন্দুধর্মে এটাই উপাসনা ও পুণ্যের কাজ। কিন্তু মুসলমানরা তো ইসলামে নিষিদ্ধ মূর্তি পূজায় হিন্দুদেরকে কখনোই বাধা দেওয়ার দাবী বা আওয়াজ তোলেনি। তিনি বলেন, মুসলমানরা পরস্পরের প্রতি ভাইয়ের মতো আচরণ করবে। রাষ্ট্রীয় ও সামাজিক আচরণের প্রশ্নে ভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের সাথে বিদ্বেষ পোষণ না করে বরং সহনশীল ও সহিষ্ণু আচরণ করবে। মুসলিম দেশে ভিন্নধর্মাবলম্বী জনগণ অবশ্যই পূর্ণ মাত্রায় নাগরিক ও সামাজিক সুবিধা ভোগ করবেন।

About Abul Kalam Azad

এটাও পড়তে পারেন

জাগতিক ও ইসলামী শিক্ষা

#জাগতিক_ও_ইসলামী_শিক্ষা মানুষের খুদি বা রূহকে উন্নতিসাধনের প্রচেষ্টার নামই হলো শিক্ষা, কথাটি আল্লামা ইকবালের। রবীন্দ্রনাথের মতে, ...