রবিবার, ২২শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ দুপুর ২:১০
Home / পরামর্শ / ইসলামী লেখক ফোরামের নির্বাচন ও আগামীর পথচলা

ইসলামী লেখক ফোরামের নির্বাচন ও আগামীর পথচলা

মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হক ::

গত ২৮শে এপ্রিল শুক্রবার রাজধানী ঢাকার ফটো জার্নালিস্ট এ্যাসোসিয়েশন হলে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ইসলামী লেখক ফোরামের তৃতীয় কাউন্সিল৷ হল ভর্তি উৎসুক তরুণ লেখকদের অনুপ্রাণিত উপস্থিতি এই কাউন্সিলের অন্যতম সৌন্দর্য ছিল ৷

আমিও আমন্ত্রিত ছিলাম অনুষ্ঠানে৷ আগ্রহ নিয়েই উপস্থিত হয়েছি এবং অনুষ্ঠান উপভোগ করেছি৷ তবে কাউন্সিলের মূলপর্ব নির্বাচন দেখতে পারিনি৷ ফলাফল শুনেছি৷ আর পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেখেছি৷ এরপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নির্বাচনের প্রতিক্রিয়া ও অনুভূতি লক্ষ্য করছি৷ সব মিলিয়ে অনেক সৌন্দর্যের মাঝে কিছু দৃষ্টি আকর্ষনী কথা মনের মধ্যে ঘুরপাক খাচ্ছে-

এক. যেহেতু ফোরামের নাম ইসলামী লেখক ফোরাম৷ সুতরাং এর নেতৃত্ব নির্বাচন প্রক্রিয়া ইসলামী হওয়া বাঞ্ছনীয়৷ পদপ্রার্থিতা ইসলামী পদ্ধতি নয়৷ বিভিন্ন ইসলামী সংগঠনে বিশেষত ছাত্র সংগঠনগুলোতে পদপ্রার্থিতা ছাড়াই নেতৃত্ব নির্বাচনের চমৎকার পদ্ধতি প্রচলিত রয়েছে৷ সেই ধরণের কোনো পদ্ধতি অবলম্বন করা ভালো হবে মনে হয়৷

দুই. প্রার্থীদের মধ্যে প্রত্যক্ষ প্রতিদ্বন্ধিতার ব্যবস্থাটাকে খুবই বিব্রতকর বলে আমার মনে হয়েছে৷ সেই সাথে কে কত ভোটে বিজয়ী আর তার বিপরীতে কে কত ভোটে পরাজিত হল সেগুলোও প্রচারিত হয়েছে৷ এটা নিশ্চয় কিছু দায়িত্বশীলকে লজ্জিত করার একটা ব্যবস্থা!

তিন. বিজয়ীদের মধ্যে কারো কারো পক্ষ থেকে ভোটারদেরকে অভিনন্দন-শুভেচ্ছা জানানোর আয়োজন হয়েছে৷ নির্বাচিত হতে পেরে তারা আনন্দিত মর্মে অনুভূতি প্রকাশ করা হয়েছে৷ নেতৃত্বকে কি তবে পশ্চিমা গণতন্ত্রীদের মত আমরাও আনন্দের উপলক্ষ হিসে ধরে নিলাম? এটাই কি নেতৃত্ব সম্পর্কে ইসলামের কন্সেপ্ট? বিষয়গুলো নিয়ে ভাবা হবে, এই প্রত্যাশা নিয়েই লেখলাম ৷

আর নতুন নেতৃত্বের জন্য যেই চ্যালেঞ্জের কথা সেখানেও বলেছি, এখানেও আবার বলছি-
লেখক ফোরামের বাইরে বা দূরে সরে থাকা সকল ইসলামী লেখককে আপন করে কাছে টেনে আনতে পারার মধ্যেই নিহীত রয়েছে তাদের সাফল্যের মর্মকথা৷ তারা সে চেষ্টা চালাবেন বলে আশা করি ৷

উৎস. লেখকের ফেসবুক ওয়াল থেকে/ ইআম/০২

About Islam Tajul

mm

এটাও পড়তে পারেন

দেওবন্দ ও দেওবন্দিয়ত আমাদের কাছে মাজলুম!

মুফতী রেজাউল কারীম আবরার :: দেওবন্দ! আমাদের শিকড়। আকাবিরদের চোখের পানি আর কলজের খুনে সিক্ত ...