সোমবার, ১০ই আগস্ট, ২০২০ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ দুপুর ১২:০১
Home / পরামর্শ / বাবা আমি প্রাইমিনিস্টার হতে চাই!

বাবা আমি প্রাইমিনিস্টার হতে চাই!

খতিব তাজুল ইসলাম::

তুমি কি হতে চাও ?
ডাক্তার!
ডাক্তার হয়ে লাভ কি?
মানুষের সেবা করবো। অসহায়দের ফ্রি সার্ভিস দিবো। সমাজের কল্যাণে উপার্জিত সম্পদ ব্যয় করবো। মানুষের দোয়া পাবো। সম্পদ আল্লাহর রাস্তায় খরচ করে তার সান্নিধ্য অর্জনই আমার জীবনের চরম লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। এমন যদি হয় একজন ডাক্তার হওয়ার অভিলাষ; তাহলে তার চেয়ে উত্তম আর কে হতে পারে?
আমরা যখন সেকেন্ডারীতে পড়তাম তখন আমাদের বলা হত- দেখ মাদরাসায় পড়ছো লক্ষ্য উদ্দেশ্য হবে একমাত্র আল্লাহকে রাজি এবং খুশি করা। তাতে যদি তুমি কায়দা পড়াও, মনে করিও তোমার পড়া আল্লাহ তায়ালা কবুল করে নিয়েছেন! আমরা ভাবলাম ব্যাসতো এখন কায়াদা পড়াতে পারি। কেল্লাহ ফতেহ। কবুলিয়তের দরজা পার হয়েছি এখন কর্মের চৌকাটে হাজির। কর্মের বারান্দায় বসে মুয়াজ্জিনের টুকর খাওয়া ইমামতির নাই গতি আর বেতনহীন মাদরাসার শিক্ষকতা দেখে কবুলিয়তের মাজেজা আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছেনা। কেন কবুলিয়তকে আমরা কায়দা ছিফারার ভিতর মাদরাসায় পড়ানোর ভিতর দোয়া দুরুদ আর তাবিজের ভিতর খতম আর কবর জিয়ারতের ভিতর বন্দী করে নিলাম?
যে রাসুল নুজুলে ওহীর জামানায় হাদীস লিখতে বারণ করেছিলেন আজ বোখারি নিয়ে তুলকালাম কান্ড আর তরজমায়ে কোরআন কেউ নিতে চায়না পড়াতেও আগ্রহী নয়। খতমে কোরআনের চেয়ে খতমে বোখারীর হাদিয়া হতে হবে স্বাস্থ্যবান। আর বোখারির মুল্য এতো বেশী সিহাহ সিত্তা থেকে পাঁচটি পবিত্র হাদীস গ্রন্থের কোন হদিস পাওয়া যাচ্ছেনা।
আচ্ছ থাক ওসব, বলছিলাম জীবনের এম্বিশনের কথা। আল্লাহকে রাজি এবং খুশির যে নুসখা বা ডায়াগ্রাম বা পন্থা বা নকশা আমাদের কপালে এঁকে দেয়া হয়েছে তার সুরাহা কি করে হয়? ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার লেখক গবেষক মুহাদ্দিস মুফাস্সির মুফতী ফকীহ হওয়ার স্বপ্ন দেখা কি বলা অবান্তর? যে সাহাবীরা আরব সাগরের পাদদেশে দাঁড়িয়ে দৃপ্তচিত্তে ঘোষণা করতেন ‘হে আল্লাহ! মহাসমুদ্রের ওপার প্রান্তে যদি যাওয়া আমাদের সামর্থ্যে থাকতো তাহলে ওখানে গিয়ে হলেও তোমার এই দ্বীন তাদের কাছে পৌছিয়ে দিতাম। বিদায় হজ্জের জ্বালাময়ী ভাষণের শেষ পর্যায়ে সাহাবীরা নিষ্পাপ শিশু প্রিয়তমা স্ত্রী আদরের পিতা মাতা ও জন্ম ভুমির দিকে শেষবারের মত নয়ন ভরে দেখে নিয়ে যার ঘোড়ার লাগাম যেদিকে ছিলো সেদিকেই রওয়ানা দিলেন আর সমস্ত অস্তিত্বে ধ্বনিত হচ্ছিল ‘বাল্লিগু আন্নি ওলাও আয়াহ’ একটি আয়াত হলেও তা অপরের কাছে পৌছিয়ে দাও।


চিনের কেন্টন শহরে সা‘দ ইবনে আবি ওয়ক্কাস রাজিআল্লাহু আনহুর কবর আমাদের জানান দিয়ে যাচ্ছে যে হে একবিংশ শতাব্দির প্রিয় ভায়েরা আমাদের! ডাল তলোওয়ার আর ঘোড়া গাধার জামানায় দশহাজার মাইল দুরে গিয়ে হলেও আশহাদু আন লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু‘র দাওয়াত দিতে আমরা সক্ষম হয়েছিলাম; বিমান আর রকেটের জামানায় গোটা বিশ্বময় ইসলামের বাণী ছড়িয়ে দিতে তোমাদের যা যা দরকার সব কিছু করো।
আমার অতি নিকটের, জ্ঞানী হিসাবে শ্রদ্ধেয় এবং জুনিয়র হিসাবে স্নেহের শাইখ সালেহ হামিদী সাহেব তিনির ১২ বছরের পুত্র জাকওয়ানের কথা বলছিলেন। জাকওয়ান তার জীবনের এম্বিশন হিসাবে প্রাইমিনিস্টার হতে চায়। বললেন কেন? বললো বাবা! আমি যখন প্রাইমারীতে ছিলাম তখন ক্লাসের কেপ্টেইন আমাকে বানানো হয়েছিলো। মক্তবেও ছিলাম গ্রুপলিডার। এখন সেকেন্ডারী স্কুলে প্রায় দুইশত ছাত্রদের মাঝে তারা আমাকে নির্বাচিত করলো কেপ্টেইন হিসাবে। আমি যখন বক্ততা দিলাম তখন হেডটিচার তার রুমে ডেকে নিয়ে আমাকে স্নেহ করেছেন। তাই ভাবছিলাম, এখানে এতো লোক আমাকে সাপোর্ট করেছে তাহলে ফিউচারে আশাকরি লোক আমাকে ভোট দিয়ে প্রাইমিনিস্টার বানাতে পারে। ছেলের কথা শোনে বাবা মিটি মিটি হাসলেন। আমি শোনে বললাম, দেখেন লন্ডনের মেয়র এখন মিস্টার সাদিক খান। ইউরোপিয়রা মেধার মুল্যায়ন করে। এটা তাদের নেশা ও পেশা। তাই তাকে উৎসাহিত করুন। সে অনেক বড় হবে ইনশাআল্লাহ। জাকওয়ান স্কুল এবং মাদরাসায় উভয়টি একসাথে পড়তেছে।
তাই বলতে চাই, দয়া করে শিশুদের চিন্তার জগতকে সীমিত করে দিবেন না। তাদের আকাংখাকে দমিয়ে ধাবিয়ে রাখবেন না। তাদের উচ্চ ভাবনার প্রশংসা করবেন। পুরুস্কৃত করবেন। হউক না ডক্টর প্রফেসর মুহাদ্দিস মুফতী বিজ্ঞানী। কারণ তার লক্ষ্য উদ্দেশ্য যে আল্লাহকে পাওয়া।

About Islam Tajul

mm

এটাও পড়তে পারেন

প্রশ্নপত্র ফাঁস সমাচার, বেফাক ও হাইয়ার দ্বায়!

খতিব তাজুল ইসলাম: কলামের শুরু এবং শেষ নিয়ে বেশ বিব্রতে আছি। পুরাটাই আগুছালো অবস্থা। স্বকীয়তার ...