বুধবার, ১৬ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং
কমাশিসা পরিবারবিজ্ঞাপন কর্নারযোগাযোগ । সময়ঃ রাত ১২:২৯
Home / খোলা জানালা / প্রয়োজন একজন সেনাপতির

প্রয়োজন একজন সেনাপতির

মাওলানা রেজাউল করীম আবরার ::

%e0%a6%af%e0%a7%81%e0%a6%a6%e0%a7%8d%e0%a6%a7কাদেসিয়ার ঐতিহাসিক যুদ্ধ। শত্রু বাহিনীর তুলনায় মুসলিম বাহিনী একেবারে হাতেগোনা। সে যুদ্ধে শত্রু বাহিনীর প্রধান সেনাপতি ছিল রুস্তুম। যু্দ্ধক্ষেত্রে রুস্তুম সর্বপ্রথম মুসলমানদের দুর্বল জায়গা খুঁজে বের করেছিল। সেটা ছিল বাজিলা গোত্রের জায়গা। রুস্তুম সে জায়গা দিয়ে মুসলমানদের উপর আক্রমণ শাণাতে চেয়েছিল। কিন্তু মুসলিম সেনাপতি সা’দ বি আবি ওয়াক্কাস রা. আগেই রুস্তুমের সে পরিকল্পনা বুঝতে পেরেছিলেন। তাই তিনি শক্তিশালী এবং যুদ্ধে পারদর্শী বনু আসাদকে সে জায়গায় মোতায়েন করেন। অর্থাৎ সাদ রা. যুদ্ধ পরিকল্পনায় রুস্তুম থেকে অনেক এগিয়ে ছিলেন।

আমাদের প্রিয় আদীব হুজুরের মুখে শুনেছিলাম যে, সে যুদ্ধে পরিকল্পনার জয় হয়েছিল। যুদ্ধ বুযুর্গী দ্বারা হয় না। কারণ বুযুর্গী দ্বারা যুদ্ধ চালালে মানুষ প্রস্তুতিতে অবহেলা করে!

বর্তমানে শত্রুরা আমাদের ঘিরে রেখেছে! তাদের পরিকল্পনা সূদুর প্রসারী।কীভাবে আমাদের পরাজিত করা যায়, আমাদের নাম-নিশানা মুছে ফেলা যায়, সে নিয়ে নিত্যনতুন কৌশল তারা গ্রহণ করছে! আমাদের দুর্বল দিক খুঁজে বের করে একের পর এক সে জায়গায় আঘাত করছে! ফলাফলও তারা পেতে শুরু করেছে !

এখন ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে তাদের কিছু করতে হয় না! মুসলমানদের ঔরসে জন্মগ্রহণকারীরা এখন ইসলামের বিরুদ্ধে লিখে! ইসলামের নবী নিয়ে কূরুচিপূর্ণ বক্তব্য চলছে ধারবাহিকভাবে! একজন একটু থামলে আরকজন গজিয়ে উঠছে!

তাদের সৈন্য সংখ্যা আমাদের তুলনায় হাতেগোনা। কিন্তু তাদের সেনাপতিরা যুদ্ধ পরিকল্পনায় আমাদের চেয়ে অনেক এগিয়ে! আমাদের সিপাহীসংখ্যা কত, তার কিঞ্চিত ধারণা আমরা দেখিয়েছিলাম শাপলা চত্বরে! কিন্তু আমাদের সেনাপতিরা সেদিন কি পরিকল্পনা নিয়েছিলেন যে, আমরা সেখানে পরাজিত হয়েছি।আমাদের মেরুদেণ্ড সেদিন ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছিল! এরপরে এখনও সোজা হয়ে দাড়াতে পারিনি! সেনাপতিদের কয়েকজনতো রীতিমত রণভঙ্গ দিয়েছিলেন!

তাদের ঈপ্সিত লক্ষ পানে ছুটে চলছে তাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী। আর আমাদের পরিকল্পনা এখনও নিজেদের মধ্যে সীমাবদ্ধ! কীভাবে কে কাকে ঘায়েল করতে পারি! কাকে বাদ দিয়ে বড় পদটা বাগিয়ে নিতে পারি। কে আমার দলে থাকলে আমি দলে অনাহুত হয়ে পড়ব, তাকে কীভাবে পিষ্ট করা যায়, সে বিষয়ে আমাদের পরিকল্পনা রীতিমত ঝড় তুলছে! মাঝেমধ্যে আমাদের টানা-হেচড়া নিজেদের অজান্তে বাহিরে প্রকাশ পেয়ে যায়! শত্রুরা খিলখিলিয়ে হাসে!

আমরা সিপাহী! সেনাপতিরা আমাদের যুদ্ধে চালনা করবেন। তাদের বাতলানো পথে আমরা শত্রুর বিরুদ্ধে লড়াই করব! প্রশ্ন হল, কে আমাদের চালনা করবে? কে হবে সাদ বিন আবি ওয়াক্কাসের উত্তরসূরি? শত্রুর পরিকল্পনা থেকে তিনি অনেক এগিয়ে থাকবেন?

লেখক : উস্তাযুল হাদিস। জামিয়া আবু বকর সিদ্দিক রা., ঢাকা

About Abul Kalam Azad

mm

এটাও পড়তে পারেন

ডাক্তার যখন ডাকাত! (১ম – ৪র্থ পর্ব)

ইমদাদুল হক নোমানী:: ডাক্তার যখন ডাকাত!  (১ম পর্ব) মানুষ মাত্রই কম বেশী অসুস্থ হয়। একজন ...